পুষ্প আপনার জন্য ফোটে না
| |

ভাবসম্প্রসারণঃ পুষ্প আপনার জন্য ফোটে না

আজকের পোস্টে আমরা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ভাবসম্প্রসারণ শেয়ার করব “ পুষ্প আপনার জন্য ফোটে না“। এই ভাবসম্প্রসারণটি আশা করি তোমাদের পরীক্ষায় কমন আসবে। আমরা এইভাবসম্প্রসারণটি যত সম্ভব সহজ রাখার চেষ্টা করেছি – তোমাদের পড়তে সুবিধা হবে। চলো শুরু করা যাক।

পুষ্প আপনার জন্য ফোটে না

মূলভাব: পরের উপকারে নিজেকে বিলিয়ে দেওয়াতেই জীবনের সার্থকতা।

সম্প্রসারিত ভাব : নিজের স্বার্থকে বড়ো বলে বিবেচনা না করে অপরের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত করতে পারলে জীবনের উদ্দেশ্য সফল হয়। এর মাধ্যমে জীবনের প্রকৃত অর্থ ও সুখ খুঁজে পাওয়া যায় ।ফুল ফোটার পর চারিদিকে সৌন্দর্য বিলিয়ে একসময় ঝরে পড়ে। সে কখনো নিজের জন্যে ফোটে না; অন্যকে আকৃষ্ট করতে, মুগ্ধ করতেই ফোটে। এতেই ফুলের সার্থকতা। মানুষের উচিত ফুলের এ কল্যাণকর ব্রতকে নিজের জীবনের পাথেয় হিসেবে গ্রহণ করা। মানুষ যদি তার ক্ষণস্থায়ী জীবন ভোগবিলাস ও ব্যক্তিস্বার্থ উদ্ধারের কাজে ব্যয় করে, তাহলে মানুষের সংকীর্ণতা ও স্বার্থপরতাই প্রকাশ পায়। নিজের সুখ বা স্বার্থ নয়; বরং পরের জন্যে জীবনকে কাজে লাগাতে পারলে মানুষের মহত্ত্বের প্রকাশ ঘটে। নিজের সুখের ভাবনা বিসর্জন দিয়ে অপরের কল্যাণের জন্যে প্রয়োজনে জীবন ও মন উৎসর্গ করলে যে সুখ পাওয়া যায়, তা-ই প্রকৃত সুখ। মানুষ যদি ফুলের মতো উদার মনোভাব নিয়ে জীবনযাপন করে তবে অবশ্যই সুখ খুঁজে পাবে। মহাজ্ঞানী, উদার ও মহৎ ব্যক্তিরা কখনো নিজ স্বার্থকে বড় করে দেখেন না। তাঁদের ধ্যানে ও কর্মে দেশ ও দশের ভাবনাই প্রধান হয়ে ওঠে। তাঁর সুন্দর গুণাবলি দিয়ে দেশ ও দশের কল্যাণে পৃথিবীকে সুন্দর, নির্মল ও আনন্দমুখর করে গড়ে তাতে প্রাণপণে প্রচেষ্টা চালান। এ ধরনের স্বার্থত্যাগী মানুষের জন্যে আজও পৃথিবী টিকে আছে। তাঁরা মনে করে তাঁদের আগমনই ঘটেছে মানুষের কল্যাণের জন্যে।

See also  অনুচ্ছেদঃ অটিজম সচেতনতা দিবস

মন্তব্য : পুষ্প যেমন অপরের মনোরঞ্জনে নিজেকে উৎসর্গ করে, তেমনই জ্ঞানী, উদার ও মহৎ ব্যক্তিরা অপরের কল্যাণ সাধনে ব্রতী হন । আমাদের সকলেরই উচিত দেশ ও জাতির কথা চিন্তা করে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করা ।

সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য তোমাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আশা করছি আমাদের এই পোস্ট থেকে ভাব সম্প্রসারণ যেটি তুমি চাচ্ছিলে সেটি পেয়ে গিয়েছ। যদি তুমি আমাদেরকে কোন কিছু জানতে চাও বা এই ভাব সম্প্রসারণ নিয়ে যদি তোমার কোনো মতামত থাকে, তাহলে সেটি আমাদের কমেন্টে জানাতে পারো। আজকের পোস্টে এই পর্যন্তই, তুমি আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে আমাদের বাকি পোস্ট গুলো দেখতে পারো।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *